রিভিউ কন্টেস্ট এন্ট্রি [২০১৫] #৩০: Mirai Nikki — Zakaria Mehrab

এনিমেঃ মিরাই নিক্কি (দ্যা ফিউচার ডায়েরি)

জনরাঃ মিস্টেরি, সুপারন্যাচারাল, সাইকোলজিকাল, থ্রিলার
এপিসোড সংখ্যাঃ ২৬ এপিসোড + ১ ওভিএ
ম্যাল রেটিংঃ ৮.২

শব্দসংখ্যা সীমিত । সূচনা বাদ দিয়ে তাই অন্য পয়েন্ট এ চলে যাই । তবে যেটা মাথায় রাখতে হবে এইটা হচ্ছে ড়িভিউ 8-) গ্যাগ হিসেবে কন্টেস্ট এ পাঠালাম :D

প্লট (আই সুলেমানলি সয়্যার দ্যাট আই এম আপটু নো গুড)ঃ

হাইস্কুল বালক আমানো ইউকিতেরু উরফে “ইউক্কি” ; পড়াশুনায় মনোযোগ নাই , মাঝে মাঝে কল্পনার রাজ্যে তার দোস্ত ডিউস এর সাথে বকবক করে আর সারাদিন মোবাইল টিপাটিপি করে । তবে ফেসবুক-টুইটার না ; তার আসক্তি হল ডায়েরি লেখায় । পুরা মোবাইলটাকে সে একটা ডায়েরি বানিয়ে ফেলে যেইখানে তার প্রতিটি কাজকর্ম সে লিপিবদ্ধ করে রাখে । বেশি মোবাইল টিপলে , চোখের বারোটা বাজে । আমানোর ও বারোটা বাজল । তবে চোখের না , তার মোটামুটি পুরা চৌদ্দগুষ্টির বারোটা বেজে গেল । একদিন আমানো দেখে ঐদিনের দিনলিপি আগে থেকেই মোবাইলে এন্ট্রি করা আছে । এবং  সব এন্ট্রিগুলাই মিনিটে মিনিটে সত্য প্রমাণিত হতে থাকে । হতভম্ব আমানো আরো থ হয়ে যায় যখন সে জানতে পারে তার কল্পনার দোস্ত ডিউস আসলে একজন গড, আমানোর ডায়েরি একটি ফিউচার ডায়েরি যেটা তার সাথে সম্পর্কিত সবকিছুর ভবিষ্যৎবাণী করে এবং তার মত আরো এগারোজন ডায়েরি ইউজার আছে । প্রত্যেকের উদ্দেশ্য বাকিদেরকে চন্দ্রবিন্দু করে বেঁচে থাকা । সবশেষে যে একজন টিকে থাকবে সেই হবে ডিউস এর উত্তরাধিকারী । সুতরাং ডিউস চোধুরী সাহেবের সম্পত্তির লোভে ডায়েরি ইউজাররা রক্তের হোলিখেলায় মেতে উঠে । আমানোর সাথে যোগ দেয় তার উপর উথালপাথাল ক্রাশ খাওয়া গাসাই ইউনো যে আমানোকে “পাবার জন্য সবকিছু করতে রাজি” ।  বাংলা সিনেমা লাগছে ?  এইখানে “সবকিছু” বলতে কি বুঝায় আপনার ধারণাই নাই । ধারণা পাওয়ার জন্য  ২৬ এপিসোড+১ ওভিএ এর এনিমেটি দেখে ফেলতে হবে ।

এইবার কাটাছেড়া করি :D

নক্সঃ

এনিমে মেইন ক্যারেক্টার বললে চোখে কি ভেসে উঠে? বোকা, স্থিরপ্রতিজ্ঞ , বন্ধুবৎসল, সময় ও ক্ষেত্রবিশেষে স্মার্ট ইত্যাদি আরো কিছু । তবে এই এনিমেটির মেইন ক্যারেক্টারটি একটি অভিজাত শ্রেণীর বলদ বাদে আর কিছু ই না । সুতরাং আপনি যদি বিন্দুমাত্র কুলনেস চান মেইন ক্যারেক্টার এর ভিতরে আপনাকে হতাশ হতে হবে ।  খালি একটা ছোট্ট উদাহরণ দেই । আপনার ক্লাসের কোন মেয়ে যদি বলে বড় হয়ে আপনাকে বিয়ে করবে , কত উচ্চ শ্রেণীর বলদ হলে আপনি এই অভিজ্ঞতা ভুলে যেতে পারেন? আরেকটি সতর্কতা হল ক্ষণে ক্ষণে ন্যাকা গলায় “ইউককককি , ইউককককি” আহ্লাদ শুনে যদি নায়িকার গলা চেপে ধরার পৈশাচিক আক্রোশ জেগে উঠে তাহলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে ।

লুমোসঃ

 উৎসাহ হারাচ্ছেন ? তাইলে এইবার ভালো কিছু ফেলি । স্বীকার করতেই হবে, প্লট বেশ ইন্টারেস্টিং এবং আমার দেখা সেরা (সম্ভবত) প্লট টুইস্ট টি এই এনিমেতে রয়েছে । স্পয়লার ছাড়া এনিমেটি দেখে যেতে পারলে আপনি যে একটি বেশ ভালো কাহিনী উপভোগ করে উঠবেন এতে সন্দেহ নাই । রোমাঞ্চকর ও পিলে চমকানো কিছু সিন পাবেন , সেই সাথে রয়েছে মানানসই ওপেনিং ও এন্ডিং সং । মেইন ক্যারেক্টার বাদে বেশ কিছু প্রভাব ফেলা ক্যারেক্টার আছে । আর রয়েছে গাসাই ইউনো । ন্যাকামি বাদ দিলে ইউনোর প্রভাব সবচেয়ে সুদূরপ্রসারী এবং তার কাজকর্ম দেখে মুহূর্তের জন্য মস্তিষ্ক অবশ করার জন্য হলেও এনিমেটি দেখা আসে ।

ইন্টারেস্টিং একটি জিনিস বলে রাখি । এপিসোডের নামগুলো খেয়াল করলে দেখবেন সেগুলো প্রতিটি ই মোবাইল সম্পর্কিত কোন টার্ম ।

মিসচিফ ম্যানেজডঃ 

সুতরাং পপকরন এবং প্যারেন্টাল গাইডেন্স নিয়ে বসে পড়ুন এবং দেখে ফেলুন মিরাই নিক্কি । তবে দেখার পর যখন আপনার গার্লফ্রেন্ড এর সাথে ডেটিং এ যাবেন তখন দয়া করে কোন ক্রিটিকাল কোন স্থানে (যেমন ছাদে, নদীর পাড়ে ইত্যাদি) বসবেন না । গার্লফ্রেন্ড আদুরে কন্ঠে “জানু, বাবু” ডাকলে সমস্যা নাও থাকতে পারে । তবে চমকে গিয়ে আপনি ছাদ থেকে কিংবা নদীতে পড়ে গেলে সেটা সমস্যা ।

30 Mirai Nikki

Comments

comments