Lovely Complex [সাজেশন] — Ahmed Fahmida Mou

Lovely Complex

এনিমেঃ Lovely Complex 
হাইস্কুল রোমান্টিক কমেডি
.
শিরোনাম আকর্ষণীয় না হলে সচারচর আমি সেসব দেখিনা বা পড়িনা।
স্বাভাবিকভাবেই এই আনিমুর টাইটেলও একদম ভাল্লাগেনাই  এক পিচ্চি জোরাজুরি না করলে এই চুইট আনিমুটা দেখাই হতোনা।

প্রথম দেখায় যেটা বলা যায়, এনিমেটা একেবারেই সিম্পল।
কিন্তু কোনো এক অজ্ঞাত কারণে,
এই বিশেষত্বহীন এনিমেটা দারুন ভালো লেগেছে।
এইখানে তেমন কোনো প্লট টুইস্ট নাই ,তাই হালকাভাবে আমি গল্পটা বলছি।

তিন বান্ধবী যার মাঝে দুজনেরই বয়ফ্রেন্ড আছে। নাই একমাত্র কোয়াইজুমি রিসা’র।
কেনো??
কারণ রিসার স্বাভাবিকের তুলনায় হাইট অনেক। সঠিক উচ্চতার কোনো বয়ফ্রেন্ড হয়না তার।
কিন্তু রিসা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ যেভাবেই হোক হাইস্কুল শেষ করবার আগে সে বয়ফ্রেন্ড অর্জন করবেই! 
এদিকে ওদের ক্লাসমেট (বন্ধুও বলা যায়) ওতানি ছেলেদের স্বাভাবিক হাইটের চেয়ে ছোটো।
তাই বেচারাকে নানান অকওয়ার্ড পরিস্থিতিতে পড়তে হয় এবং যার একটা কোনো গার্লফ্রেন্ড জোটেনা 
ওতানি আর রিসাকে ক্লাসের সবাই কমেডি-ডুয়ো বলে কারণ যখনই দেখা যায় ওরা মারামারি, জগড়াঝাটিই করতেসে, পুরা উত্তরমেরু আর দক্ষিণমেরু ধরণের!
এইরকম এক পর্যায়ে দুজনে চুক্তি করে যে,
রিসা একটা বয়ফ্রেন্ড আর ওতানি একটা গার্লফ্রেন্ড জোগাড় করবে।
যে আগে সফল হবে সে অপরজনকে ট্রিট দিবে।
এইভাবে খুনসুঁটির মাঝে রিসা অযৌক্তিকভাবে ওতানির প্রেমেই পড়ে যায়!
আর বুঝতেই পারছেন,
(১৭০cm এর মেয়ের বয়ফ্রেন্ড ১৫৪cm এর এক ছেলে) এই সম্পর্কের ডিজাস্টার কল্পনা করে বেচারি একদম মিইয়ে যায়!
কিন্তু তার বাকি দুই বান্ধবী এটা জেনে উল্টা প্রচন্ড খুশি হয় এবং দুই বান্ধবী ও তাদের দুজনের বয়ফ্রেন্ড সহ ৪জনে মিলে ওতানি আর রিসাকে মিলাবার মিশন-ইম্পসিবল এর দায়িত্ব নেয়।
.
এখানে একটা ডায়লগ দেই,
রিসা যখন উপলব্ধি করে ওতানির প্রেমে পড়সে তারপর একদিন ক্লাসের সবার হাইট মাপা হলে দেখা যায় রিসা আরো ২cm বেড়ে গেসে (আর ওতানি বাড়সে 2mm ) তাই দেখে ওর বান্ধবীরা বলে
:This is no time for growing taller Risa!! 
: Am I doing it on purpose!!! 
.
প্রথম দিকে থাকে শুধু কমেডি মাঝে এসে কমেডি-ট্র‍্যাজেডি আর শেষে রোমান্টিক , এই নিয়ে ২৪ পর্বের সাদামাটা কিন্তু ভীন্নধর্মী থিমে দারুনভাবে গড়ে ওঠা এনিমেটা ভাল্লাগবে আপনারও 
কমেডিতে জোর করে কাতুকুতু দিয়ে হাসানোর চেষ্টা নাই। কমেডিগুলা পিউর।
বাস্তবতার সাথে মিল রেখে বানানো এনিমেটা অনায়াসেই পছন্দের তালিকায় জায়গা পেয়ে গেছে।
.
[বিঃদ্রঃ
এইটা দেখার পর মনে হইসে “গোল্ডেন টাইম” নামটা এই এনিমের হওয়া উচিৎ
আর
“লাভলি কমপ্লেক্স” নামটা অই গোল্ডেন-টাইম (পছন্ডো ফালতু একটা এনিমে) এর নাম হওয়া উচিৎ ছিলো ]

Lovely Complex রিভিউ — Maisha Musarrat Ahmed

2

Lovely complex.…আমার অত্যাধিক প্রিয় একটা আনিমে.… পার্সনালি আমি একজন shoujo ফ্যান …সেহেতু এইটা আমার একটু বেশিই ভালো লাগসে। অন্যান্য যে কোনো shoujo আনিমের চেয়ে এটি একটু আলাদা…এখানে কোনো সুপারহিউম্যান সুপারপপুলার হিরো নেই , নেই কোনো অসম্ভব kawaii হিরোইন …খুবই সাধারণ চরিত্রের খুবই সাধারণ কাহিনী ..তবুও সব মিলিয়ে ……বেশ ভালো লাগার মতন . 🙂

তো এই অসাধারণ আনিমেটির প্রধান চরিত্র koizumi Risa আর atsushi Otani. ..যারা উচ্চতার দিক দিয়ে দুই বিপরীত মেরুর ..রিসা যেখানে সাধারণ যেকোন মেয়ের চেয়ে অনেকটাই লম্বা (১৭০ সেমি বা প্রায় ৫ফুট ৭)…ওতানি সেখানে সাধারনের চেয়েও খাটো (১৫৬ সেমি বা ৫ ফুট ১) ..তা সত্ত্বেও চরিত্রের দিক দিয়ে একই রকম হওয়ায় তাদের মাঝে বন্ধুত্ব গড়ে উঠতে বেশী সময় লাগে না। কিন্তু সমস্যার সুত্রপাত হয় তখনই যখন রিসা তার চেয়ে প্রায় আধফুট(!) খাটো ওতানির প্রেমে পড়ে যায় ..তো রিসা কি পারবে ওতানির চোখে নিজেকে ”বন্ধুর চেয়েও বেশী কিছু” হিসেবে তুলে ধরতে??? নাকি dumb headed ওতানির অগোচরেই রয়ে যাবে রিসার ভালবাসা? ????

জানি এখানে অনেকেই আনিমেটি দেখেছেন …কেননা আনিমেটা একটু পুরনো(২০০৭)..তবুও যারা এখনো দেখেননি তারা দেরী না করে দেখে ফেলুন ২৫ পর্বের এই রোমান্টিক কমেডি আনিমেটি। আপনার সময় উপভোগ্য হবে আশা করি।

1

One Shot: ‘Bokura no Ibasho’- by মোঃ মাইদুল ইসলাম মাহি

Lovely Complex মাঙ্গা না পড়লেও অ্যানিমে প্রায় সবাইই দেখেছে, বিশেষ করে যাদের কমেডি-রোমান্স জানরা পছন্দ তারা তো অবশ্যই। এর লাইভ অ্যাকশন মুভিও রিলিজ হয় ২০০৬ এ। সেই মুভিতে Atsushi Otani চরিত্রে অভিনয় করেন Koike Teppei. এই ব্যক্তি একাধারে অ্যাক্টর আর সিঙ্গার। Eiji wentz আর তেপ্পেই এর ডুয়ো একসাথে WaT (Wentz and Teppei) নামে পরিচিত। 

কিন্তু ওয়ান শটের আলোচনায় এদের কথা কেন?? কারণ আর কিছুই না… এই ওয়ান শটের কাহিনী যে এদেরই নিয়ে! মাঙ্গাকা Nakahara Aya তার ‘Lovely Complex’ মাঙ্গার লাইভ অ্যাকশন মুভিতে অভিনয় করা এই তেপ্পেই এর জীবনের কাহিনী থেকেই ওয়ান শটটি তৈরি করেছেন। সে হিসেবে এই গল্প তেপ্পেই এর জীবন থেকে নেওয়া।

কাহিনী সংক্ষেপঃ 
ওসাকাতে পরিবার ফেলে টোকিয়োতে চলে আসে তেপ্পেই গায়ক হবার স্বপ্ন নিয়ে। এইজির সাথে তার বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। চারিত্রিক অনেক পার্থক্য থাকলেও মিউজিক নিয়ে দুইজনের একই ভালোলাগা, একই স্বপ্ন। কিন্তু তাদের স্বপ্নপূরণের পথটা মসৃণ হয় না। অনেক পরিশ্রম আর লেগে থাকাটাও বিফল হয়ে পড়ে। সেই অবস্থা থেকে কীভাবে এই দুইজন সামনে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তাইই এখানে দেখানো হয়েছে।

MAL Rating: 7.14
Personal Rating: 8
Suggestion Priority: High

আর্টওয়ার্ক ভালো লেগেছে। কাহিনীর ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। তবে একটাই চ্যাপ্টার হবার কারণে কাহিনী বেশ দ্রুতই শেষ। তেপ্পেই-এইজির কঠিন পরিশ্রমের দিনগুলি জানার জন্যে তা মোটেও যথেষ্ট না। আরও কিছু চ্যাপ্টার থাকলে খুশি হতাম। তবে সব মিলিয়ে অখুশি না।

[NB: এই ওয়ান শট যে ট্রু স্টোরি নিয়ে করা তা জানতে পারার মূল কৃতিত্ব MAL এ এর উপরে থাকা একমাত্র রিভিউটি। এজন্যেই মূলত এটা নিয়ে আগ্রহী হওয়া] 

মেগা রোমান্টিক এনিম রিভিউঃ Tora Dora, Lovely Complex, Kaichou Wa Maid Sama লেখক মো আসিফুল হক

কয়দিন আগে এক এনিম বিশেষজ্ঞ ফ্রেন্ডরে গুতাইতেসি সাজেশনের জন্য। যেইটার নামই কয় হয় দেখসি নয়ত পছন্দ হইতেসে না। এক পর্যায়ে কইল, “তুই তো রোমান্টিক এনিম দেখসই না; এইবার একটা দেইখা দেখ, কেমন লাগে।” আমিও “কি আছে জীবনে” বইলা ভাব্লাম এইবার দেইখাই ফেলি। B-)B-)B-)B-)
শুরু করলাম তোরাদোরা দিয়া; এরপর লাভলি কমপ্লেক্স এবং সর্বশেষ কাইচৌওয়া মেইড সামা।

Tora Dora: এই এনিম দিয়া রোমান্টিক এনিম ধরাটা একটা মহা ভুল হইসে। এখন আর কোন রোমান্টিক এনিমই আর সেইরকম ভাল লাগে না। তোরাদোরা এক কথায় অসাধারন। কাহিনী, ক্যারেক্টার ডেভেলপমেন্ট, ট্র্যাক, কমেডি, রোমান্স – সবকিছু। রিয়ুজি এবং তাইগা – দুই মেরুর দুই বাসিন্দা।

একজন রিয়ুজি শান্তশিষ্ট লেজবিশিষ্ট টাইপ আর অন্যদিকে তাইগা মার মার কাট কাট টাইপ। কিন্তু রিয়ুজির চেহারায় এমন কিছু আছে যা তাকে গুন্ডা গুন্ডা ভাবতে বাধ্য করে; এইজন্য লোক জন তার সাথে খুব একটা মিশে না। রিয়ুজি তাইগার এক ফ্রেন্ডকে এবং তাইগা রিয়ুজির এক ফ্রেন্ডকে মনে মনে পছন্দ করে। দুইজন দুইজনের জন্য ম্যাচ করতে গিয়ে এক পর্যায়ে একজন আরেকজনকে পছন্দ করে ফেলে। তারপর? তারপরেই টুইস্ট। ঘটনার অনেকদুর পর্যন্ত আমার মনে হইতেছিল টিপিকাল হিন্দি সিনেমা স্টাইলেই আগাইতেসে; শেষে কি হইব তা তো বুঝতেই পারতেসি; দেইখা কি হইব? কাহিনীর শেষে মনে হইসে গালে কইসা চড় খাইসি – এইরকম টুইস্ট। :):):):):)

রোমান্টিক এনিমে মাঝে মাঝেই কাহিনী খুব ঝুলাইয়া ফেলে; অনেক অবাস্তব কিছু দেখায়; কিন্তু তোরাদোরা প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত একটা সেনিটি বজায় রাখসে। দুইটা জিনিস অনেক দিন মনে থাকব – রোমান্টিক এনিমে one of the best kiss scene আরএই সাউন্ডট্র্যাকটা । গানটা সিমপ্লি মাই ফেভারিট এনিম সাউন্ডট্র্যাক।:D:D:D

আমার রেটিং: ৮.৭/১০।

Lovely Complex: হালকা ধাঁচের খুব সুন্দর একটা রোমান্টিক এনিম। ছেলে চরিত্র অতানি এবং নারী চরিত্র রিসা। রিসা অতানির চেয়ে বেশ খানিকটা লম্বা। এদের মাঝে সারাদিনই খুনসুটি লেগে থাকে। সাধারনভাবে এরা সবার কাছে “হানশিন কিওশিন” ( কমেডি ক্যারেক্টার) নামেই পরিচিত। এইভাবে ঝগড়া করতে করতে আর মজা করতে করতে একদিন মেয়েটা বুঝতে পারে সে অতানিকে ভালবেসে ফেলেছে। অনেক সাহস সঞ্চয় করে এবং সংকোচ ফেলে দুইবার অতানিকে প্রপোজও করে ফেলে। কিন্তু অতানি মনে করে এইটা বোধহয় রিসা মজা করতেসে এবং সেও দুইবারই রিজেক্ট করে।

আরেকটা টিপিকাল হিন্দি সিনেমা কাহিনী মনে হচ্ছে? দেখতে থাকুন, আশা করি শেষ অংশ দেখে হতাশ হবেন না।:):):):)

আমার রেটিং: ৭.৫/১০।

Kaichou Wa Maid Sama:শোজো এনিম বা রোমান্টিক এনিমের যে কয়টা লিস্ট দেখা যায় তার অধিকাংশের মধ্যেই এইটা লিস্টের প্রথম দিকে থাকে। দুইটা মেইন চরিত্র উসুই তাকুমি এবং মিসাকি – অসম্ভব এপেলিং ক্যারেক্টার। বিশেষ করে মেইল ক্যারেক্টার উসুই তাকুমির জন্য তো দুনিয়ার প্রায় সব নারী এনিমখোররা এক কথায় পাগল !!!B-)B-)B-)B-)

এছাড়া মিসাকি ক্যারেক্টারটাও অসাধারন। কিন্তু আমার মনে হইসে এনিমটা লেখক নিজ হাতে ধ্বংস করার জন্য লেখসেন। অত্যন্ত ঝুলে যাওয়া কাহিনী। মিসাকি একটা মেইল ডমিনেটেড স্কুলের স্টুডেন্ট কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট, স্কুলের পরিবেশ ঠিক রাখার ব্যাপারে প্রচন্ড স্ট্রিক্ট; স্কুলের ছেলেদের কাছে মাঝে মাঝেই ভয় এবং বিরক্তির কারণ। তবে ছাত্র ছাত্রী এবং শিক্ষকরাও তাকে সমীহ করে চলে। কিন্তু তার পরিবার অনেক গরীব হওয়ায় তাকে একটা মেইড ক্যাফেতে কাজ করতে হয়। মিসাকি এই ঘটনা স্কুলের সবার কাছ থেকে গোপন রাখে। এর মাঝে মিসাকি মাঝে মাঝেই বিপদে পড়লে উসুই তাকে উদ্ধার করে। এর বাইরে কাহিনী উদ্ধার বা লেখা আমার পক্ষে সম্ভব হয় নাই। কমেডি আছে; তবে cliche. তবে এই মতামত একান্তই আমার ব্যাক্তিগত; অনেককেই বলতে শুনেছি কাহিনী তাদের খুব একটা খারাপ লাগে নাই, সুতরাং একটা ঝুকি নিয়ে দেখে ফেলতেই পারেন। তবে আমার মনে হয় না দেখে খুব লাভ আছে। :|:|:|:|:|

আমার রেটিং: ৪/১০।

তবে আর দেরি কেন? দেখা শুরু করেন এই এনিমগুলি। আর এনিম নিয়ে আড্ডা দিতে চাইলে চলে আসুন এই গ্রুপে ।