এফ এ সি ৩৭

জনসংখ্যা

দ্বীপ দেশ জাপানের আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা তুলনামুলকভাবে কম। কারণ মূলত জীবনযাত্রার বিশাল ব্যয়, সেই সাথে বেশিরভাগই সংসার শুরু করতে চায় না, স্বাধীন জীবনযাপনই এদের বেশি পছন্দ। সরকার বেশি সন্তানের বাবা-মাকে ইনসেন্টিভ দিচ্ছে, তবুও এই ব্যাপারে জাপানের অধিবাসীদের তেমন মাথাব্যথা নেই।

পারিবারিক চেতনা বা মূল্যবোধ সব জায়গাতেই কমে যাচ্ছে, জাপানও এর ব্যতিক্রম নয়।

আনিমে সাজেশন

ইয়ামাতো নাদেশিকো শিচি হেঙ্গে[Yamato Nadeshiko Shichi Henge]

নাকাহারা সুনাকো হল ভয়াবহ ধরনের অসামাজিক, নিজের ঘরে বসে আপন মনে প্রেতচর্চা করা এক তরুণী। সে যে কতটা পিকুলিয়ার, সেটা বোঝার জন্য এটুকু জানাই যথেষ্ট, তার ভালবাসার পাত্র হচ্ছে স্কুলের এনাটমি বোঝানোর জন্য যে ম্যানিকিন ব্যবহার হয়, আর কঙ্কাল। তো তাকে এক পারফেক্ট গার্ল, বা ইয়ামাতো নাদেশিকো বানানোর জন্য সুনাকোর আনটি পাঠালেন চার সুদর্শন তরুণকে। তাদের ঔজ্বল্যে চোখ ধাধিয়ে গেলো সুনাকোর, নোজব্লিডের শিকার হল সে। এরপর?

কেন দেখবেনঃ টিপিক্যাল শোউজো না, চমৎকার ক্যারেক্টার ডিজাইন, সেই সাথে কমেডির মিলন।

ম্যাল রেটিং ৭.৯৮
আমার রেটিং ৯

মাঙ্গা সাজেশন

মেরু পুরি[Meru Puri]

 

আইরি স্বপ্নে বিভোর, তার সামনে একদিন এসে হাজির হবে রাজপুত্র, বিয়ে করবে তাকে, তারা সুখে ঘরসংসার করবে। তো একদিন রুপকথার রাজ্য থেকে এক রাজকুমার সত্যি সত্যি হাজির হল, কিন্তু সে যে হাইস্কুল পড়ুয়া আইরির সাথে তুলনা করলে স্রেফ এক বাচ্চা ছেলে! এই অসমবয়সী দুইজনের সম্পর্ক কি আদৌ প্রেমে পরিণত হবে?

কেন পড়বেনঃ খুবই জনপ্রিয় শউজো মাঙ্গা ভ্যাম্পায়ার নাইটের মাঙ্গাকার আঁকা, ভদ্রমহিলার আঁকার হাত তো ভালই, কাহিনীকে এগিয়েও নিতে পারেন সুন্দরভাবে। মেইন দুই ক্যারেক্টারও যথেষ্ট লাইকেবল।
কেন দেখবেন/পড়বেন নাঃ শউজো জন্রার, কাজেই বুঝতে পারছেন মারপিট খুব একটা নেই, মূল পাত্রপাত্রীদের দৈনন্দিন খুনসুটিই সিরিজের প্রাণ। সেই মতো বুঝে নিন।

ম্যাল রেটিং ৮.৩১
আমার রেটিং ৮

Comments

comments

One thought on “এফ এ সি ৩৭

  1. Pingback: Zachary

Comments are closed.