ওয়ান আউট- একটি “দেখাটা উচিত” এনিম রিভিউ — লেখক মো আসিফুল হক

“Nobody wins, but I!” এনিমটার সাবটাইটেল একদম পারফেক্ট। জেনার হিসেবে “স্পোর্টস” দেখে কেউ যদি মনে করেন এই এনিমটা শুধু বেইসবল খেলা নিয়া, আমি তো বেইসবল পারি না, বুঝি না, সুতরাং দেখব না- তাইলে বিরাট একটা ভুল করবেন।

বেইসবল এবং বুদ্ধির খেলার এক অসাধারণ মিশ্রণ “ওয়ান আউট”। বেইসবলকে গৌণ রেখে এনিমের লেখক বুদ্ধির খেলাটাকেই বেশী প্রাধান্য দিয়েছেন।
কেউ যদি মনে করেন শুধু স্কিল ব্যাবহার করেই বেইসবলের মত খেলাগুলোতে সবসময় জেতা যায় – তাদেরকে ভুল প্রমাণই যেন এই এনিমের লক্ষ্য।

তকুচি তউয়ার সাথে লিগের নিচের সারির দল লিয়াকনের চুক্তি হয় এই মর্মে যে, প্রত্যেকটা “ওয়ান আউটের” জন্য সে পাবে ৫ মিলিওন ইয়েন এবং তার বিরুদ্ধে প্রত্যেক রানের জন্য সে জরিমানা দেবে ৫০ মিলিওন ইয়েন। টিমের মালিক হিসেব করে দেখে যে আগের বছরের সেরা পিচারের বেতন এই হিসেবে ০ হয়ে যায়। সে খুব খুশি হয়ে এই চুক্তি মেনে নেয়।

তকুচির স্পেশালিটি শুধু “ফাস্ট বলে”। সে আর কোন বল পিচ করতে পারে না। এই ফাস্টবল নিয়েই সে ব্যাটারদের সাথে সাইকোলজিক্যাল ওয়ার করে এবং তাদের আউট করে।

শেষ দিকে টিমের মালিক তার বেতন কমানোর জন্য যে সকল ফন্দি করে – এবং তার প্রত্যেকটাই তকুচি যেভাবে সামাল দেয়- এক কথায় অসাধারণ। আর শুরুর সাউন্ডট্র্যাকটা তো বেশী জোস। :):):):)

২৫ পর্বের এই এনিমটা যেইরকম হাই টোন দিয়ে শুরু হয়েছিল সেই রকম হাই টোন দিএই শেষ হয়েছে। লেখক অযথা কোথাও কাহিনী টেনে বাড়ানোর চেষ্টা করেন নাই। এইটাও এনিমটার আরেকটা ভাল দিক। :):):)

এক কথায় বেশ উপভোগ্য একটা এনিম। সুতরাং আর দেরি কেন? এখনই দেখা শুরু করে দিন। B-)B-)B-)B-)

হ্যাপি এনিমিং !!!! :):):)

Comments

comments

Leave a Reply