D.Gray-man রিভিউ — Hussain Shoykot Ash

Name- D.Gray-man
Episodes- 103
Mal Score- 8.23
Ranked- 272
Genres- Action, Adventure, comedy, shounen

আচ্ছা যদি মানুষকে এমন সুযোগ দেওয়া হত যে সে তার প্রিয়জন, যে মারা গেছে তাকে ফিরিয়ে আনতে পারবে, তাহলে সে কি করত? তাহলে সে নিশ্চয়ই দ্বিতীয়বার না ভেবে তাকে ফিরিয়ে আনার জন্য যা করতে বলা হয়েছে, তাই করত।

হ্যা, ডি.গ্রে-ম্যান এ ঠিক তাই দেখানো হয়েছে। এখানে কেউ মারা গেলে সাথে সাথে মিলিনিয়াম আর্ল নামক একজনের আবির্ভাব হয়, যে মৃত ব্যক্তির আপনজনের কাছে এমন একটি যন্ত্র নিয়ে আসে, যার সাহায্যে সেই ব্যক্তি তার সদ্য মৃত আত্মীয়ের আত্মাকে ডেকে আনতে পারবে। এবং এখানেই ভুল করে ফেলে মানুষ, ডেকে নিয়ে আসে তার মৃত প্রিয়জনকে।

এখন বলে দিই, যেই যন্ত্রের সাহায্যে আত্মাকে ডেকে আনা হয়, তাকে বলা হয় আকুমা। এই যন্ত্রের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এতে আত্মা আটকা পড়ে যায় এবং আত্মা মিলিনিয়াম আর্ল এর কথা শোনে। কিন্তু আত্মার মুক্তি হয়না, তাই সে নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে মিলিনিয়াম আর্লের কথা শুনে এবং ইভিল স্পিরিট হয়ে আটকা পড়ে যায় পৃথিবীতে আকুমা নামক যন্ত্রের
মধ্যে।

এখন আসি, স্বভাবতই আমাদের জানা মতে যখন কেউ মারা যায় তখন সে মুক্তি চাইবেই, কিন্তু তাকে যদি আটকে রাখা হয় তখন সে মনোঃক্ষুণ্ণ হবে। মিলিনিয়াম আর্ল যখন মৃত ব্যক্তির আত্মাকে তার প্রিয়জনের সাহায্যে আকুমাতে পরিণত করেছে, তখন আকুমাকে যাতে সাধারণ মানুষ চিনতে না পারে তাই তাকে আদেশ দেয়, যেন সে যে তাকে ডেকে এনেছে তার শরীর ধারণ করে।

এ তো গেল আকুমাতে পরিণত হওয়ার ঘটনা, কিন্তু যখন ইভিল থাকবে তখন নিশ্চয়ই হিরোও থাকবে যারা পৃথিবীকে রক্ষা করবে!

হ্যা, এখানেও তেমন আছে এবং তাদেরকে এক্সরসিস্ট বলা হয়। এদেরকে গড এমন পাওয়ার দেন যাতে তারা আকুমা ধ্বংস করতে পারে। এদেরকে যে পাওয়ার দেওয়া হয় তাকে বলা হয় ইনোসেন্স। যেই সংগঠন আকুমা ধ্বংসের কাজ করে তাদের নাম হচ্ছে ব্ল্যাক অর্ডার। ইনোসেন্স নিয়ে গবেষণা করে এমন বিজ্ঞানী, এক্সরসিস্ট এবং আকুমা শনাক্ত করে এমন রিসার্চ টিম থাকে। মূলত এই নিয়েই গঠিত ব্ল্যাক অর্ডার। বিভিন্ন এক্সরসিস্টের বিভিন্ন পাওয়ার আছে, এবং বিভিন্ন আকুমার বিভিন্ন পাওয়ার।

 

অন্যান্য বিভিন্ন শৌনেন এনিমের মতো এখানেও একজন কেন্দ্রীয় নায়ক চরিত্র আছে। তার নাম হচ্ছে এলেন ওয়াকার, তিনি অন্যান্য এক্সরসিস্ট থেকে আলাদা। তার ওপর একটা অভিশাপ আছে, যার কারণে সে তার বাম চোখের সাহায্যে মানুষের ছদ্মবেশে আকুমা থাকলে তা দেখতে পারে। এবং যেই অস্ত্র সে আকুমা মারতে ব্যবহার করে, তা আর কিছুই না; তার নিজের হাত। হ্যা, তার হাত একটা অস্ত্র। যখন কোনও আকুমা শনাক্ত হয় তখন এটা একটিভেট হয় এবং এলেন আকুমা মারতে তা ব্যবহার করে।

প্রথম ৫ টা পর্ব একটু বোরিং, কারণ এখানে নায়কের প্রবেশ হয় এবং শুধু আকুমা বনাম এক্সরসিস্টের সংঘর্ষ হয়, তাই প্রথম প্রথম মনে হতে পারে যে এটা এমন এনিম যেখানে প্রতিটা পর্বে এক্সরসিস্ট আকুমা হান্টে বের হবে এবং একটা পর্ব একটা মিশন নিয়ে গঠিত, কিন্তু ৫ টা পর্ব ধৈর্য নিয়ে দেখুন, আর তার পর দেখুন কিভাবে কাহিনী ডালপালা মেলে আপনার সামনে উপস্থিত হয়। এনিমটার গ্রাফিক্স একটু খারাপ, তবে পুরানো এনিম হিসেবে ভালই বলতে হয়। ওপেনিং এবং এন্ডিং গানগুলি অসাধারণ। তবে যেই জিনিসটা আমার এই এনিমের সবচাইতে ভাল লেগেছে সেইটা হচ্ছে যেভাবে স্টোরি গড়ে উঠেছে এবং যেভাবে কাহিনী অগ্রসরহয়েছে।

যদি এই এনিমটা না দেখে থাকেন তাহলে আপনি বুঝবেন না কি মিস করেছেন, তাই যদি কোন নতুন স্বাদের শৌনেন এনিম দেখতে চান, তাহলে আজই দেখা শুরু করতে পারেন অসাধারণ এই এনিমটি

Anime download link-http://kissanime.com/Anime/D-Gray-man

Comments

comments