JoJo’s Bizzare Adventure (2012) [রিভিউ] — Zahin Mobashshir

JoJo

JoJo’s Bizzare Adventure (2012)
এপিসোড সংখ্যা: ২৬
জনরা: একশন, অ্যাডভেঞ্চার, সুপারন্যাচারাল, শৌনেন

সাধারণ এনিমের সুথিং ব্যাপারটা থেকে বের হয়ে একটু বোল্ড কিছু দেখতে চাইলে এই এনিমের বিকল্প হয় না। সৌনেন এনিমে মানেই একটু ফ্ল্যাশি কিছু, রুড ডায়োলগ, আর ফাইটের সময় টাইম ল্যাপ্সের ব্যাপার স্যাপার। কিন্তু এই এনিমে সৌনেনকেই মনে হয় নতুন রূপ দিয়েছে। এর মাঝে সাধারণ সৌনেন এনিমের সব তো আছেই বরং একটু বেশি করেই আছে।

এই এনিমের আর্ট আমার দেখা আজ পর্যন্ত সবচেয়ে ব্যতিক্রম আর সুন্দর আর্ট। মাঙ্গাকা ঠিক যেভাবে তার কাহিনীতে বলতে চেয়েছিল মনে হয়েছে এনিমেটা ঠিক সেভাবেই বানিয়েছে। এই এনিমের আর্ট দেখে যাতে কারওই চোখ ঝলসাতে বাদ না থাকে, সে ব্যাপারটা নিশ্চিত করা হয়েছে। এখানে এমন সব রঙের মিশ্রণ ব্যবহার করা হয়েছে যা আসলেই কোন এনিমেতে দেখা যায় না। এনিমেটা দেখার সময়ে আমার বারবার Cadillacs and Dinosaurs গেমটার কথা মনে হয়েছে কারন এনিমেটার আর্ট স্টাইলের সাথে খানিক মিল খুজে পেয়েছি আবার ক্যারেক্টারগুলাও দেখতে প্রায় একই রকম।

Jojo’s Bizzare Adventure এর সবচেয়ে যেই জিনিসটা আমার কাছে ভাল লেগেছে তা হল এর সাউন্ডট্রাক এবং সেটার যথাযোগ্য ব্যবহার। এটার ওপেনিং এর সিড়ির উপরে নায়ক আর নিচে ভিলেন দাড়ানোর সিনটা দেখে বাংলা সিনেমার কথা মনে পড়ে গিয়েছিল। এর কাহিনীতেও ঐরকম কিছুটা মিল আছে, সেটা উল্লেখ করতে একটা কথা না বললেই নয়। ভিলেনকে না মেরে আগেই উদযাপন না করলেই কি হইতো না।
যাই হোক এটার সাউন্ডট্রাকের মধ্যে সেরা হলো Roundabout। এই অসাধারণ একটা সাউন্ডট্রাক ঠিক কোথায়, কিভাবে ব্যবহার করলে এটার মর্যাদা আরও বেড়ে যাবে সেটা খুবই পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে খেয়াল করা হয়েছে। প্রতিটা ক্লিফহ্যাঙ্গার মানেই Roundabout। এই এনিমের সবচেয়ে সেরা মুহুর্ত ছিল এক Jojo এর খুবই ঘনিষ্ট একজন মারা যাওয়ার পরে তারা আএ এন্ডিংই দিল না। আমি জানি এটা তেমন আহামরি কিছু না তাও মৃত মানুষকে শ্রদ্ধা দিতে এতটুকু করেছে বলে আমার মনে হওয়ায় এটাই আমার দেখা সেরা মুহুর্ত।

এনিমেটার কাহিনী সম্পর্কে কিছু বলার আসলে কোনই দরকার পড়ে না কারন এর নামই এই এনিমের কাহিনীর বহিঃপ্রকাশ। ২৬ এপিসোডে দুইটা আর্ক শেষ হয় এবং প্রতি আর্কে একেকটা JoJo অর্থাৎ Joestar পরিবারের একেকজন কর্ণধারের কাহিনী বর্ণিত হয়েছে। প্রতিটা কাহিনীই খুবই সুন্দরভাবে বর্ণনা করা হয়েছে আর এখানের ফাইট এবং সুপারন্যাচারাল জিনিসপাতির ব্যাখ্যাও খুবই সুন্দরভাবে দেওয়া হয়েছে।
সর্বপরি আমার কাছে এই এনিমেটা খুবই ভালো লেগেছে। আপনাদেরও যদি ব্যতিক্রম ধাচের কিছু দেখার ইচ্ছা থাকে তাহলে এটা দেখে ফেলুন।

Comments

comments