নাইন্টিন, টুয়েন্টি-ওয়ান [মানহোয়া রিকমেন্ডেশন] — Fatiha Subah

 

Nineteen Twenty-One

নাইন্টিন, টুয়েন্টি-ওয়ান
জনরা: জোসেই, ড্রামা, রোমান্স, স্লাইস অফ লাইফ
চ্যাপ্টার: ২১
লেখক: ইয়োহান (গল্প), কিম হিয়ে-জিন (আর্ট)
মাইআনিমেলিস্ট রেটিং: ৮.০২
ব্যক্তিগত রেটিং: ৮/১০

সময় খুবই মূল্যবান সম্পদ। কেউ হাতে সময় থাকতেও তার মূল্য না দিয়ে হেলায় হারিয়ে ফেলে। কেউবা হারিয়ে ফেলা সময়কে খুঁজে ফেরে। Yun-lee এমনই একজন মেয়ে যার জীবনের ২টি বছর হারিয়ে গেছে। এক ট্র্যাফিক অ্যাক্সিডেন্ট কেড়ে নিয়েছে তার ১৯ থেকে ২১ বছর বয়সের সময়টুকু। এই ২টি বছর বেঁচে থাকার পরেও যেন তাদের অস্তিত্ব নেই। অথচ সমাজ এই ২১কেই বলে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার বয়স। হঠাৎ করেই যেন Yun-lee কে এগিয়ে যাওয়া বাকি সবার সাথে জীবন যুদ্ধে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। হতাশাগ্রস্থ Yun-lee এই শূন্যতা বুকে নিয়েই তবু প্রিপারেটরি স্কুলে যায় নতুন করে সব শুরু করতে। তার এই বিবর্ণ জীবনে সান্ত্বনা খুঁজে পায় শুধু একটি জিনিস থেকে। আর তা হল লাঞ্চ ব্রেকে বিড়ালদের সাথে সময় কাটানো আর তাদেরকে খাবার কিনে খাওয়ানো।

এই বিড়ালের মাধ্যমেই সে আরেক বিড়াল প্রেমী Dong-hwi এর দেখা পায়। ১৯ বছর বয়সী Dong-hwi এর জীবনে আছে সেই ২টি বছর যা Yun-lee এর নেই। কিন্তু অদ্ভুতভাবে এই ছেলেটি সমাজের নিয়ম মেনে ইউনিভার্সিটিতে যেতে কিংবা চাকরি করতে চায় না। Dong-hwi এর কথা জীবনের ২০টি বছর যখন সে বড় হয়েই কাটাবে তবে ২০ বছর বয়সটা নিজের মত করে বেঁচে থাকতে চাওয়াটা খুব অপরাধের? চিন্তাভাবনায় উত্তর মেরু-দক্ষিণ মেরু হলেও এই দুই তরুণ-তরুণীর মিল আছে একটি দিক থেকে। তারা দুজনেই বিড়াল ভালোবাসে এবং রাস্তার অবহেলিত বিড়ালদের জন্য কিছু করতে চায়। Dong-hwi Yun-lee কে বলে, “I read it in a book before, that animals don’t feel sorry for themselves. That touched my heart. The life of animals and simply devoted to the time given. The life of humans, with sympathy for other living beings. ..If we can travel halfway between those two paths, don’t you think our lives would be wonderful?”

শুরুতে জীবন নিয়ে ভারীক্কি গল্প মনে হলেও মজার ব্যাপার হলো বিড়াল নিয়েই গড়ে উঠেছে নাইন্টিন, টুয়েন্টি-ওয়ানের গল্প। মাইআনিমেলিস্ট এটাকে শৌজো ট্যাগ দিলেও এটি খুব সুন্দর একটি জোসেই মানহোয়া। লাইটহার্টেড কিন্তু ভাবানোর মত গল্প আর চোখ জুড়ানো চমৎকার রঙিন আর্টের সাথে আপনার সময়টা দারুণ কাটবে। আর আপনি যদি হন বিড়াল প্রেমিক তাহলে তো কথাই নেই! মানহোয়াটি পড়ে দেখতে ভুলবেন না।

Comments

comments