Shiki [রিভিউ] — Amor Asad

Shiki

সোতোবা নামের গ্রামটা মোটামুটি নিরিবিলি, অল্প কিছু মানুষের বাস। দেশ উন্নত বলে সভ্যতার ছোঁয়া পৌঁছেছে, যতটুকু না হলেই নয়। তবুও সবুজ ঠিকরে বেরোয়। শহুরে জোম্বিদের আশ্রম, অনেকেই বায়ু পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে আসে। চাষাবাদ করে গ্রামের অধিবাসীরা। অবসরে ভুড়ি এলিয়ে এর ওর নামে উড়ো কথা ছড়ায়।
শহুরে জোম্বিরা এরকম গ্রামে গেলে বিহবল হবে। প্রথমে আনন্দের আতিশয্যে, পরেরবার করার মত কাজ খুঁজে না পেয়ে।
কিন্তু সোতোবায় কেউ বসে নেই। গ্রামে মড়ক লেগেছে। একের পর এক গ্রামবাসী মারা যাচ্ছে। মৃত্যুর আগে সবার লক্ষণ এক।
মহামারী নয়তো? — স্থানীয় ডাক্তার ভাবে।
দু’চারজন মৃত ব্যক্তিকে আবার চলতে ফিরতে দেখা গেলো। এ কী করে সম্ভব? ডাক্তারের ব্যাখ্যার জন্যে বসে নেই স্থানীয় ওঝা। প্রচার করে বেড়ালো, গ্রামের এক কোণে বড় প্রাসাদ। নতুন অধিবাসী এসেছে শহর থেকে। ওরাই সব মৃত্যুর কারণ, ওরাই মৃতদের জাগিয়ে তুলছে।

মিস্টেরি/ভ্যাম্পায়ার ঘরানার এই সিরিজখানা নিজের বক্তব্যে নিশ্চিত না। খেলো দর্শন কপচানো বড় একটা অংশ জুড়ে। ভ্যাম্পায়ারদের মানুষ হত্যাকে বেচে থাকার জন্যে অত্যাবশ্যক হিসেবে দেখায় মানুষের পশু ভক্ষণের উদাহরণ দিয়ে। মিথোলজিতে ভ্যাম্পায়ার অশুভের প্রতীক, ইশ্বরবিমুখতার প্রতীক। শিকি সিরিজখানা মিথ এড়িয়ে প্রাকৃতিক বাস্তুসংস্থান দিয়ে একটা দর্শনগত দোটানা তৈরী করতে চায়। কিন্তু এভাবে দেখলে, ভ্যাম্পায়ার আলাদা প্রজাতি না। বিদ্যমান প্রজাতিতে বিকৃতি। প্রাকৃতিক বাস্তুসংস্থানে কোন প্রজাতির সদস্য বিকৃতির স্বীকার হলে অন্যেরা তাঁকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়। পাখির ঝাক বা পিঁপড়া দিয়ে উদাহরণ দেয়া যাবে। মানুষেরাও এর বাইরে না।

সিরিজের গল্পকথন অবশ্য ভাবনার দাবীদার। অনেকাংশে ব্রুটাল। প্রচুর চরিত্রের সমাগম, স্ক্রিনে সময় নিয়ে আসীন হবার দাবীদারও অনেক। ফলে ঘটনা বেশ ধীর গতিতে এগোয়, কিন্তু গল্প সাজানোর ঢঙ্গ আকর্ষণ ধরে রাখতে সক্ষম। এক বসায় দেখে ওটার মত গতিশীলও মনে হতে পারে।

৭.৫/১০

Comments

comments